পাশাপাশি করবে রিয়া ও আলিসা কে দাফন

0
44
জহিরুল ইসলাম জহির।। রাজধানীর বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টের ভবনে লাগা আগুনের ঘটনায় কুমিল্লার লালমাই উপজেলার দুই সহোদর বোনসহ তিন বোনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন লালমাই উপজেলার পেরুল উত্তর ইউনিয়নের চরবাড়িয়া গ্রামের শিল্পপতি কোরবান আলীর বড় মেয়ে ফৌজিয়া আফরিন  রিয়া ও ছোট মেয়ে সাদিয়া আফরিন আলিসা। রিয়া মালয়েশিয়াতে আন্তর্জাতিক ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএ শেষ পর্বে ছিল। আলিসা ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজে অষ্টম শ্রেণিতে পড়তো।
অন্যজন হলেন রিয়া ও আলিসার খালাত বোন কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের হাতিগাড়া গ্রামের আবদুল কুদ্দুসের মেয়ে নুসরাত জাহান নিমু। নিমু ঢাকা সিটি কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়তো।
শুক্রবার সকাল ১১টায় তাদের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। খবর পেয়ে রিয়া ও আলিসাকে একনজর দেখতে চরবাড়িয়ায় ভিড় করে শত শত নারী।
বাদ জুমা নিমুকে হাতিগাড়া গ্রামে এবং বিকেল ৪টায় রিয়া ও আলিসা কে চরবাড়িয়া গ্রামের বাড়িতে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে পাশাপাশি দাফন করা হয়েছে।
জানাজার নামাজের পূর্বে রিয়া ও আলিসার বাবা কোরবান আলী বলেন, আমার দুই সন্তান দুনিয়া থেকে চলে গেছেন। এরকম করুন মর্মান্তিক মৃত্যু আল্লাহ কি কারনে দিয়েছেন সেটা আল্লাহই ভালো জানেন। আল্লাহ হয়ত আমাদের পরীক্ষার মধ্যে দিয়েছেন। শনিবার আমি রিয়াকে নিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা ছিল।
নিমুর বাবা আবদুল কুদ্দুস বলেন, আগুন লাগার পর আমার মেয়ে ফোন করে বলে আব্বু আমাদের বাঁচাও। আমাদের এখান থেকে বের করে নিয়ে যাও। এরপর আমি কোরবান আলী ভাইকে জানাই। পরবর্তীতে ঢাকা মেডিকেলের মর্গে থেকে আমরা তিনজনের নিথর দেহ গ্রহন করি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here