সরকারি বেতনে বেসরকারি চিকিৎসা

ডা: শাহিনুর আক্তার পায়েল

103

জাফর আহমদ ।।  লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আওয়াতাধীন ‘উত্তর বাজার উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে’র মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাহিনুর আক্তার পায়েল উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ডিউটি ফাঁকি দিয়ে লাকসামের একটি বেসরকারী হাসপাতালে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করার অভিযোগ উঠেছে। ৩৩ তম বিসিএস এর এই কর্মকর্তা ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে উল্লেখিত সাব-সেন্টারে পদায়ন হন। কিন্তু তিনি অদ্যবধি ঐ সাব সেন্টারে যান নি। সেখানে দৈনিক শত শত রোগীর চিকিৎসা সেবা দেন উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার রবিউল হোসেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও তিনি ডিউটি করতেন না। সম্প্রতি তার ব্যাপারে সাংবাদিকদের অনুসন্ধান শুরু হলে মাঝে মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনি আসেন এবং হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর দিয়ে চলে যান বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। সূত্রমতে লাকসামে একটি বেসরকারী হাসপাতালে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করেন ডাঃ শাহিনুর। এ সুবাদে বিভিন্ন গাইনি অপারেশনের রোগী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল আলীর মেটারনিটি ক্লিনিকের জন্য জোগাড় করে দেন ডাঃ শাহিনুর। আর বেসরকারী যে হসপিটালে ডাঃ শাহিনুর প্রাইভেট প্র্যাকটিস করেন, ঐ হসপিটালের সকল অপারেশনে ডাঃ আলীর এ্যাসিসট্যান্ট হিসেবে কাজ করেন ডাঃ শাহিনুর আক্তার পায়েল। এ সুবাদে ডাঃ আব্দুল আলীর সাথে ডাঃ শাহিনুরের ভালো সম্পর্ক থাকার কারণে শাহিনুর আক্তার সরকারি ডিউটি না করলেও সমস্যা হয় না। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অন্যান্য মেডিকেল অফিসারদের জোর করে ডাবল ডিউটি করাচ্ছেন। অথচ পায়েলদের ডিউটি করাচ্ছেন না। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার এই দ্বৈত নীতির কারণে চাপাক্ষোভ বিরাজ করছে লাকসাম সরকারি হাসপাতালে কর্র্মরত ডাক্তারদের মাঝে। এ ব্যাপারে ডাঃ শাহিনুর আক্তারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, স্যার সব জানে, এ বিষয়ে স্যারের সাথে কথা বলেন।