বার কাউন্সিলে সর্বোচ্চ ভোট পেলেন বাসেত মজুমদার পুত্র রাজা

102

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৭ হাজার ৪৩৩ ভোট পেয়ে প্রথম হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, লালমাই উপজেলার শানিচোঁ গ্রামের কৃতি সন্তান অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা। তিনি গরীবের আইনজীবী খ্যাত মরহুম অ্যাডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদারের ছেলে। বাবার সুনামের কারণেই তিনি সর্বোচ্চ ভোট পাওয়ার রেকর্ড গড়েছেন বলে মনে করছেন আইনজীবীরা।
২৯ মে (রোববার) মধ্যরাতে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান অ্যার্টনি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা ঘোষণা করেন।
আনুষ্ঠানিক ফলাফলে মোট ১৪টি পদের বিপরীতে ১০টিতে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাদা প্যানেল। আর চারটিতে জয় পেয়েছে বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল।
সাতটি সাধারণ আসনের মধ্যে সাদা প্যানেল থেকে চার জন ও নীল প্যানেল থেকে তিন জন বিজয়ী হয়েছেন। সাধারণ আসনে সাদা প্যানেলের অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা সর্বোচ্চ ১৭ হাজার ৪৩৩ ভোট পেয়ে প্রথম হয়েছেন। ১৭ হাজার ৯৩ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন সাদা প্যানেলের অ্যাডভোকেট সৈয়দ রেজাউর রহমান। ১৬ হাজার ৮৪৪ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন সাদা প্যানেলের অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান বাদল। ১৬ হাজার ৮১১ ভোট পেয়ে চতুর্থ হয়েছেন নীল প্যানেলের ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। ১৫ হাজার ৯৬৫ ভোট পেয়ে পঞ্চম হয়েছেন নীল প্যানেলের ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। ১৫ হাজার ২৭ ভোট পেয়ে ষষ্ঠ হয়েছেন সাদা প্যানেলের অ্যাডভোকেট মো. রবিউল আলম বুদু। ১৪ হাজার ৭৯৬ ভোট পেয়ে সপ্তম হয়েছেন নীল প্যানেলের অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।
গ্রুপ আসন সাতটির মধ্যে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাদা প্যানেল ছয়টিতে ও বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল একটি আসনে বিজয়ী হয়েছেন। গ্রুপ আসনে ঢাকা অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে সাদা প্যানেলের (গ্রুপ-এ) আবদুল বাতেন ৪ হাজার ৪৪৪ ভোট, বৃহত্তর ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর জেলার আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ বি) মো. জালাল উদ্দিন খান ১ হাজার ৭২৫ ভোট, বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা ও সিলেট জেলা অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ ডি) এ এফ মো. রুহুল আনাম চৌধুরী ১ হাজার ৯৯৮ ভোট, বৃহত্তর খুলনা, বরিশাল ও পটুয়াখালী অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ ই) আনিছ উদ্দিন আহমেদ সহিদ ১ হাজার ৭৫২ ভোট, বৃহত্তর রাজশাহী, যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ এফ) মো. একরামুল হক ১ হাজার ৪৭১ ভোট এবং বৃহত্তর দিনাজপুর, রংপুর, বগুড়া ও পাবনা জেলার আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ জি) মো. আব্দুর রহমান ১ হাজার ৭৫০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
অন্যদিকে গ্রুপ আসনে নীল প্যানেলের একমাত্র বিজয়ী প্রার্থী বৃহত্তর চট্টগ্রাম ও নোয়াখালী জেলার আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ সি) এ এস এম বদরুল আনোয়ার ২ হাজার ৬০৪ ভোট পেয়েছেন।
এরআগে ২০১৮ সালের নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন অ্যাডভোকেট রাজার পিতা বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল বাসেত মজুমদার। তিনি মোট ১৬ হাজার ৩০৬ ভোট পেয়েছিলেন।