কুমিল্লায় জনপ্রিয় হচ্ছে ছাদ বাগান

130

কুমিল্লায় জনপ্রিয় হচ্ছে ছাদ বাগান। এ জেলার নগরীর বাসা-বাড়ির ছাদগুলো ফুল, ফল ও সবজির বাগানে ভরে উঠছে। যা সবুজ নগরায়ন ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার সাথে নিজেদের চাহিদা মেটাতেও ভূমিকা রাখছে। ছাদে বিশেষ পদ্ধতিতে ফলস ছাদ করে তাতে মাটি ভরাট করে এসব বাগান করা হয়।

বাগানগুলোতে নানা জাতের দেশি বিদেশি ফলের পাশাপাশি চাষ হচ্ছে সবজিও। এতে সবুজ নগরায়ন যেমন হচ্ছে, তেমনি চাহিদা মেটাচ্ছে বিষমুক্ত ফল ও সবজির। বছর জুড়ে বাগানগুলোতে থাকে নানা রকমের ফল ও সবজির সমারোহ। পরিবারের চাহিদা মেটাতে একটি বাগানই যথেষ্ট।

সিটি করপোরেশন এলাকাতে অনেক ভবনেও রয়েছে ছাদ বাগান। বাগানগুলোতে আমড়া, পেয়ারা, লেবু, ডালিম, মাল্টা, আম, পেঁপে, জাম্বুরা, বড়ইসহ বিভিন্ন জাতের ফল ধরেছে। যা সবুজ নগরায়ন ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করছে। পাশাপাশি নিজেদের চাহিদা মেটাতেও সাহায্য করছে।

এমনই এক ছাদ বাগানের মালিক নিলয় সাহা বলেন, শুধু শখের বশেই নয় বিষমুক্ত ফল আর সবজি খেতে বাগান গড়ে তুলেছি। আমার বাগানে উৎপাদিত ফল বাজারের ফল থেকে স্বাদে কিছুটা ভিন্ন, ও স্বাস্থ্যসম্মত।

বাড়ির মালিক আবদুল আলী জানান, ছাদে সবজি চাষ করে পরিবারের চাহিদা মেটে। এমনকি মাঝে মধ্যেই ভাড়াটিয়াদের মাঝেও বিতরণ করি। কুমিল্লা নগরীতে বাস করে ৫ লাখেরও বেশি মানুষ। যাদের প্রতিদিনের চাহিদা বিপুল পরিমাণ ফল ও সবজির।

কুমিল্লা সিটির মেয়র মনিরুল হক বলেন, ফল ছাড়াও ছাদ বাগানে চাষ হচ্ছে নানা জাতের সবজির। যা দৈনন্দিন চাহিদা মিটাচ্ছে। এর ফলে ছাদ বাগান করতে অনেকেই উৎসাহিত হচ্ছেন।