কর্মহীন ও অসহায়দের ঘরে ঘরে কনকাপৈত ইউপি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল

179

সারা দেশে মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে সরকার ছুটি ঘোষণার পর পরই সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কনকাপৈত ইউনিয়ন পরিষদের খেটে খাওয়া মানুষ গুলোও বেকার,অসহায় হয়ে পড়ে। বিভিন্ন পেশার দিন মজুর শ্রমিকেরা ঘরের বাইরে বের হতে না পেরে পরিবার নিয়ে পড়ে চরম সংকটে। এই সংকটময় মুহূর্তে অসহায় কর্মহীন, গরীব ও খেটে-খাওয়া মানুষের কাছে সরকারি এবং নিজ তহবিলের দেয়া খাদ্য সামগ্রী ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কনকাৈপত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল ।

তিনি কনকাপৈত ইউনিয়নের গ্রামে গ্রামে হতদরিদ্রের জন্য চাল,ডাল,আটা,তৈলসহ প্রয়োজনীয় সব কিছুই তিনি দিচেছন অর্ধহারে অনাহারে থাকা লোক গুলোকে। কখনো রাতের আধারে যাচেছন ঘরে ঘরে আবার কখনো দিচ্ছেন ইউনিয়ন পরিষদে। এছাড়াও তিনি ১০ টাকা কেজি চাল পরিদর্শন, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করন, মধ্যবিত্ত,প্রবাসী পরববার বা ফোনে খবর পেলে তাদের বাড়িতে গোপনে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন এ মানবতার ফেরিওয়ালা জাফর ইকবাল চেয়ারম্যান।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল বলেন,আমি আওয়ামী লীগ করলেও ত্রাণ নিয়ে কোন রাজনীতি করি না। আমার নেতা মুজিবুল হক বলেছেন,দলমত নির্বিশেষে সকল অভাবী মানুষকে সহযোগিতা করতে হবে।

আমার ইউনিয়নে সরকারী সহযোগিতা এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে মোট ২ হাজার ৮০০ মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি। আমার এবং আমাদের অভিভাবক,সাবেক সফল রেলমন্ত্রী ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক মুজিব ভাইয়ের নির্দেশে মোতাবেক আমি কাজ করে যাচ্ছি, এছাড়াও প্রতিদিন ইউনিয়ন পরিষদে সময় দিয়ে ত্রাণ বিতরণ কর্যাক্রম তদারকি করছি। একই সাথে রাত্রি বেলা ১০টা পর্যন্ত ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের হাটবাজারে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক দোকানপাট চায়ের দোকান বন্ধ রাখার ব্যাপারে কর্মতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছি। এ সময় ক্ষতিগ্রস্থ কর্মহীন, উপার্জনহীন মানুষের কথা শুনে যারাই ত্রাণ সহায়তা চাচ্ছেন সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রি বিতরণ করছি। এখনো যদি কেউ ত্রাণ সামগ্রী না পেয়ে থাকেন আপনারা স্ব-স্ব গ্রামের নবগঠিত ইউনিয়ন ত্রান কমিটির সাথে অথবা সরাসরি আমার সাথে যোগাযোগ করবেন। প্রিয় ইউনিয়নবাসী আপনারা জানেন আমাদের প্রিয় নেতা সাবেক রেলমন্ত্রী চৌদ্দগ্রামবাসীর প্রতিনিয়ত খোঁজখবর রাখছেন। সুতারাং আমার ইউনিয়নেও আপনারা কেউ ত্রাণ সহযোগিতা থেকে বাদ পড়বেন না, কনকাপৈত ইউনিয়ন বাসী কেউ না খেয়ে থাকবেন না ইনশাআল্লাহ।প্রিয় কনকাপৈত ইউনিয়নবাসী আপনারা সরকারের দেয়া সকল নির্দেশনাগুলো মেনে চলুন। প্লিজ আপনারা ঘরে থাকুন। সুস্থ থাকুন। এ সময় তিনি সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের আহবান জানান, সমাজের অসহায় ও কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।